ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আইন ও আদালত

নারায়ণগঞ্জে কিশোরী জীবিত উদ্ধার: খলিলুরের জামিন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২, ২০২০
নারায়ণগঞ্জে কিশোরী জীবিত উদ্ধার: খলিলুরের জামিন

নারায়ণগঞ্জ: সাম্প্রতিক সময়ে নারায়ণগঞ্জের আলোচিত স্কুল জিসা আক্তার মণিকে গণধর্ষণ ও হত্যার দায় স্বীকার আদালতে স্বীকারোক্তি প্রদানকারীদের মধ্যে নৌকার মাঝি খলিলুর রহমানের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।

আদালতের শুনানিতে ছিলেন পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন ও আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল লতিফ মিঞা।

আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল লতিফ মিঞা জানান, নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমানের আদালতে পুনরায় শুনানির দিন নির্ধারিত ছিল। দুই পক্ষের শুনানি শেষে আসামি খলিলুর রহমানের স্থায়ী জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

গত ৪ জুলাই থেকে নিখোঁজ হয় কিশোরী জিসা। গত ৬ আগস্ট থানায় অপহরণ মামলা করেন বাবা। পরদিন ওই মামলায় পুলিশ বন্দরের খলিলনগর এলাকার আব্দুল্লাহ (২২), বুরুন্দি পশ্চিমপাড়া এলাকার ইজিবাইকচালক রাকিব (১৯) ও ইস্পাহানি খেয়াঘাটের নৌকার মাঝি খলিলুর রহমানকে (৩৬) গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর গত ৯ আগস্ট নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পৃথক আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন আসামিরা।

স্বীকারোক্তিতে তারা জানান, ওই স্কুলছাত্রীকে নৌকায় করে গণধর্ষণের পর হত্যা করে মরদেহ শীতলক্ষ্যায় ভাসিয়ে দিয়েছেন তারা। কিন্তু এই স্বীকারোক্তি দেওয়ার ১৪ দিন পর নিখোঁজ হওয়া কিশোরী জিসা ফিরে আসে। যা নিয়ে পুরো শহরব্যাপী আলোচনা সৃষ্টি হয়েছে। একইসঙ্গে আসামিপক্ষ জবানবন্দি প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২, ২০২০
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa